একই সাথে হার্টের বাইপাস ও ভাল্ব প্রতিস্থাপন

প্রথম বারের মত চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন হাসপাতালে সম্পন্ন হলো একই সাথে বাইপাস ও ভাল্ব প্রতিস্থাপন করেন মেট্রোপলিটন হাসপাতালের চীফ কার্ডিয়াক সার্জন ডা: সারওয়ার কামাল । ২০১৬ সালের ১০ জানুয়ারী এই জটিল অপরেশনটি সম্পন্ন করেনতিনি।
কিডনী ও হার্টের রক্তনালীতে ব্লক এবং একটি ভাল্ব নষ্ট হয়ে যাওয়ায় দীর্ঘদিন যাবত মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছিলেন হতদরিদ্র ও শাহ আমানত নিটিং এন্ড ড্রাইং ইন্ডাস্টাটী এর দারোয়ার রবিউল হোসাইন। ভাল্ব প্রতিস্থাপন ও বাইপাসের খরচ জোগাড় করতে না পারায় এক প্রকার হতাশ হয়ে বেঁচে থাকার আশা ছেড়ে দিয়েছিলেন তিনি। অবশেষে টিকে গ্রুপের আর্থিক সহায়তায় ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন হাসপাতালের সার্বিক সহযোগিতা ও চীফ কার্ডিয়াক সার্জন ডা: সারওয়ার কামালের সাহসি সিদ্ধান্তে কিডনী রক্তনালীতে রিং লাগানো পর একই সাথে হার্টের বাইপাস ও ভাল্ব প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে নতুন জীবন পেলেন রবিউল হোসাইন।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন হাসাপতালের চীফ কার্ডিয়াক সার্জন ডা: সারওয়ার কামাল জানান, রোগী আমার কাছে ভাল্ব প্রতিস্থাপনের জন্য আসলে আমি পরীক্ষা-নীরিক্ষার পর দেখতে পাই তার কিডনীতে ও হার্টে ব্লক রয়েছে। এমতাবস্থায় তার ভাল্ব প্রতিস্থাপন সম্ভব নয়। পরে মেডিকেল বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তার কিডনীতে রিং পরানো হয় । তারপর একসাথে একই দিনে হার্টের বাইপাস ও ভাল্ব প্রতিস্থাপন করি। যা আমাদের জন্য ছিল একটি বড় চ্যালেন্জ। কিডনী রক্তনালীতে রিং পরানোসহ একই সাথে বাইপাস ও ভাল্ব প্রতিস্থাপন একটি বড় ও জটিল অপারেশন। এ জাতীয় অপারেশন খুব ঝুকিপূর্ন হওয়ায় হার্ট সার্জনরা এ অপারেশন করতে চাননা। এ জাতীয় জটিল হার্ট ও রক্তনালীর সকল অপারেশন আমরা চট্টগ্রামে নিয়মিত করছি